পুরুষরা সঙ্গীর কাছে যে ৬ সত্য গোপন করেন

স্বামী-স্ত্রী বা প্রেমিক-প্রেমিকাদের মধ্যে মতবিরোধ আবেগ পরিলক্ষিত হয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নারীরা বেশি স্পষ্টবাদী ও সোচ্চার হন। আর পুরুষরা সঙ্গীকে খুশি করার জন্য কোন্দল এড়িয়ে চলেন। তবে এমন কয়েকটি সত্য বিষয় রয়েছে যেগুলো পুরুষরা স্ত্রী বা প্রেমিকার থেকে গোপন করেন। চলুন বিষয়গুলো দেখে নেয়া যাক-

অন্য নারীকে আকর্ষণীয় মনে হলে
অন্য কোনো নারীকে আকর্ষণীয় মনে হলেও এটি ভুলেও স্ত্রী বা প্রেমিকার কাছে প্রকাশ করেন না বেশিরভাগ পুরুষ। যদিও অন্য কোনো নারীকে দেখে আকর্ষণীয় মনে হতেই পারে এটি অপরাধের কিছু নেই। তারপরও ভুল বোঝাবুঝি হতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই পুরুষরা এটি গোপন করেন।

স্ত্রী বা প্রেমিকাকে বিরক্তিকর মনে হলে
মানুষের মুড সব সময় একরকম থাকে না। এমন অনেক সময় হয় যে স্ত্রী বা প্রেমিকার ওপর পুরুষরা বিরক্ত হন তারপরও তারা ভিন্নভাবে বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। একজন নারী এই বিষয়টি স্পষ্ট করে বলতে পারলেও একজন পুরুষ কখনোই তা পারেন না। তবে এর ব্যতিক্রমও রয়েছে।

তাদের আর্থিক অনাটন
বাড়ির অর্থনৈতিক দিকটি দেখার দায়িত্ব মূলত পুরুষদের। এজন্য আর্থিক বিষয়টি নিয়ে চাপে থাকলেও পুরুষরা এটি স্ত্রীর কাছে বেশিরভাগই গোপন রাখেন। কারণ স্ত্রীর কাছে পুরুষরা তাদের দুর্বলতা প্রকাশ করতে চায় না।

যৌন দক্ষতার অভাব
যৌনতা সম্পর্কে অভিজ্ঞতার অভাব বা কোনো ধরনের শারীরিক সমস্যা পুরুষরা গোপন করেন। তারা এই বিষয়টি একান্তই নিজের কাছে রাখতে চান। অনেক সময় স্পষ্ট বিষয় হওয়া সত্ত্বেও তারা স্ত্রীর কাছে এটি গোপন করেন।

অভ্যন্তরীণ কোন্দল
পুরুষরা দৃঢ়চেতা হিসেবে পরিচিত। তবে তাদেরও আবেগ অনুভূতি রয়েছে। বাস্তব পরিস্থিতি যাই হোক না কেন তারা হাসি প্রকাশ করতে পারে। এজন্য স্ত্রী বা প্রেমিকার ওপর আস্থা না আনা পর্যন্ত বাস্তবতার বিষয়টি প্রত্যেক পুরুষই গোপন করার যথাসাধ্য চেষ্টা করে।

পুরুষতন্ত্রের প্রত্যাশায় ক্লান্ত
সবকিছু সামলাতে এবং হাসিমুখে থাকতে গিয়ে বেশিরভাগ সময় পুরুষরা ক্লান্ত হয়ে পড়ে। মানসিক টানাপড়েনের বিষয়টি তারা হাসিমুখে সামলে নেন। বেশিরভাগ সময়ই এই বিষয়টি পুরুষরা প্রকাশ করতে চান না। তবে এটি তাদেরকে মাঝে মাঝে হতাশ করে তোলে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*